WordPress.com vs WordPress.org: কোনটা ভালো

0
(0)

যদি আপনি একটি ব্লগ বানিয়ে আপনার ব্লগিং ক্যারিয়ার শুরু করতে চান আর WordPress.com vs WordPress.org এরমধ্যে কনফিউজ হয়ে যান তাহলে এই আর্টিকেলটি অবশ্যই পড়ুন আজ আমি আপনাদের বলব এই দুটি প্লাটফর্মের মধ্যে কি পার্থক্য রয়েছে আর আপনারা আপনাদের প্রয়োজন অনুসারে কোন প্লাটফর্মে আপনাদের ব্লগ শুরু করতে পারবেন

এই দুটো প্ল্যাটফর্মের নাম একই রকম লাগলেও এদের flexibility আর customization এর ক্ষেত্রে এই দুটির মধ্যে অনেক পার্থক্য রয়েছে একদিকে self hosted WordPress.org ওয়েব সাইটে আপনার পুরো কন্ট্রোল আপনার কাছে থাকবে আর ফ্রী WordPress.com ওয়েবসাইটে আপনি কোন হোস্টিং, ব্যাকআপ আর অপটিমাইজেশনের চিন্তা না করেই আপনার ওয়েবসাইটে কাজ করতে পারবেন

 

WordPress.com vs WordPress.org: কোনটা ভালো

WordPress.com vs WordPress.org: কোনটা ভালো

এই দুটো প্ল্যাটফর্ম এর মধ্যে পার্থক্য বলার আগে আপনাদের WordPress.org আর WordPress.com এর pros এবং cons সম্বন্ধে জেনে রাখা অত্যন্ত আবশ্যক

 

WordPress.org

WordPress.org একটি open source আর 100% ফ্রি ওয়েবসাইট বিল্ডিং প্লাটফর্ম আপনি আজ অবধি ওয়ার্ডপ্রেসের যত গুণগান শুনে থাকবেন সেটি WordPress.org এর এই প্লাটফর্মে যে কোন ব্যাক্তি ফ্রিতে ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন আপনার শুধুমাত্র প্রয়োজন হবে একটি ডোমেইন আর হোস্টিং এর

WordPress.org pros

  • এটি সম্পুর্ন ফ্রি এবং এটি খুবই সহজ
  • WordPress.org তে ওয়েবসাইট বানালে পুরো কন্ট্রোল আপনার কাছে থাকবে আপনি আপনার অনুসারে ওয়েবসাইটের কাস্টমাইজ করতে পারবেন প্লাগিন ইন্সটল করতে পারবেন এসইও ইত্যাদি সবকিছু করতে পারবেন WordPress.org এর এইসব সুবিধার জন্য এটি সব থেকে বেশি জনপ্রিয়
  • এই প্লাটফর্মে ওয়েবসাইট ওয়েবসাইট আর তার সমস্ত টাকার মালিক আপনি হবেন আর যদি আপনি এখানে  লিগেল content পাবলিশ করেন তাহলে আপনি কোন নিয়ম ভঙ্গ করেছেন বলে অন্য কেউ আপনার ওয়েবসাইটটি বন্ধ করতে পারবে না
  • আপনি বিনা অ্যাড বা অ্যাড এর সাথে আপনার ওয়েবসাইটটি চালাতে পারবেন আপনার কাছে এটির সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ থাকবে
  • WordPress.org তে বানানো ওয়েবসাইটে আপনি এড লাগিয়ে, অ্যাফিলিয়েট করে, Sponsored post ইত্যাদি আরো অনেক মাধ্যমে মনিটাইজ করতে পারবেন এখানে আপনাকে কারো সাথে রেভিনিউ শেয়ার করার প্রয়োজন হবে না
  • এই প্লাটফর্মে আপনি অনেক ফ্রী আর পেড সিম পেয়ে যাবেন যারা যে আপনি আপনার ওয়েবসাইট টিকে আরো সুন্দর বানিয়ে ফেলতে পারবেন ওয়েবসাইট বেশিরভাগ ছোট-বড় ফিচারস এড করার জন্য লক্ষ্য ফ্রী বা পেড প্লাগিন উপলব্ধ আছে
  • এখানে আপনি Google Analytics এর মত পাওয়ারফুল টুল integrate করে আপনার ওয়েবসাইটের ট্রাফিক আরো ভালোভাবে এনালাইজ করতে পারবেন
  • WordPress.org পাওয়ারফুল এর সাথে অনেক বেশি flexible এই প্লাটফর্মে আপনি আপনার অনলাইন স্টোর বানিয়ে আপনার নিজস্ব জিনিস অনলাইনে বিক্রি করতে পারবেন, payemnt gateway integrate ওরে অনলাইন পেমেন্ট নিতে পারবেন ইত্যাদি

WordPress.org cons

  • এই প্লাটফর্মে ওয়েবসাইট শুরু করার আগে আপনার সর্বপ্রথম হোস্টিং এর প্রয়োজন হবে হোস্টিং এর অর্থ হল ইন্টারনেট এর সম্বন্ধে জড়িত এমন একটি অংশ যেখানে আপনার ওয়েবসাইটের ফাইল স্টোর থাকবে আপনি শুরু করার সময় বেসিক হস্টিং প্লান নিতে পারেন আর সময়ের সাথে যখন আপনার ওয়েবসাইটে ট্রাফিক বাড়বে আর রেভিনিউ আসবে তখন সেটিকে আপনি আপগ্রেড করতে পারেন
  • এখানে আপনাকে আপনার ওয়েবসাইটের ব্যাকআপ, আপডেট, মেনটেনেন্স ইত্যাদির খেয়াল আপনাকে রাখতে হবে যদিও self-hosted ওয়েবসাইটে প্লাগিন্স এর ব্যবহার করে এই সমস্ত কাজ আপনি খুব সহজেই করতে পারবেন

 

WordPress.com

WordPress.com একটি ফ্রি ওয়েবসাইট building আর হোস্টিং সার্ভিস এটির শুরু করেছিলেন ওয়ার্ডপ্রেসের ফাউন্ডার Matt Mullenweg এই প্লাটফর্মে আপনি ফ্রি ওয়েবসাইট বানাতে পারলেও এখানে আপনি অনেক ধরনের লিমিটেশন পাবেন আরে গুলিকে দূর করার জন্য আপনাকে অনেক পেড প্লাগিন্স নিতে হবে

WordPress.com শুধু মাত্র চারটি উপলব্ধ আছে free, personal(200 টাকা প্রতি মাসে), Premium(350 টাকা প্রতি মাসে), Business(800 টাকা প্রতি মাসে)

WordPress.com pros

  • WordPress.comএকটি ফ্রী আর সহজ প্ল্যাটফর্ম যদি আপনি আপনার সখ কে পূরণ করার জন্য ব্লগিং করতে চান আর পয়সা রোজগার করা আপনার লক্ষ্য নয় তাহলে এই প্লাটফর্ম টি আপনার জন্য WordPress.com আপনাকে ওয়েব সাইটে ফাইল স্টোর করার জন্য 3 জিবি পর্যন্ত ফ্রি স্টোরেজঃ দেয়
  • এখানে আপনাকে ওয়েবসাইটের আপডেট, ব্যাকআপ ইত্যাদির চিন্তা করতে হবে না এখানে সমস্ত কাজ WordPress.com এর সামলিয়ে নেয়

WordPress.com cons

  • এখানে আপনি খুবই কম থিম আর কাস্টমাইজেশন এর অপশন পাবেন যদি আপনি একজন ফ্রী ইউজার হন তাহলে আপনি লিমিটেড ফ্রি থিম ব্যবহার করতে পারবেন কিন্তু প্রিমিয়াম থিম ব্যবহার করতে চাইলে সেগুলি শুধুমাত্র Premium এবং Business ইউজারদের জন্য উপলব্ধ এরপর আপনি কাস্টম CSS এর ব্যবহার করতে পারবেন
  • WordPress.com এর সমস্ত ওয়েবসাইটে JetPack প্লাগিন প্রথম থেকে এনেবেল থাকে এছাড়া আপনি অন্য কোন প্লাগিন ইন্সটল বা আপলোড করতে পারবেন না বিজনেস ইউজারদের জন্য কোম্পানি কিছু এক্সট্রা প্লাগিন ইন্সটল করার সুবিধা দিয়েছেন
  • যদি আপনি এই প্লাটফর্মে ফ্রি ওয়েবসাইট বানিয়েছেন তাহলে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার ওয়েবসাইটে কোম্পানি তাদের নিজেদের এড দেখাবে আর এটির কোন সুবিধা আপনি পাবেন না এই অ্যাড গুলো কে রিমুভ করার জন্য আপনাকে কোন পেড প্ল্যান নিতে হবে 
  • এখানে আপনি আপনার ওয়েব সাইটে এড লাগাতে পারবেন না যদি আপনার ওয়েবসাইটে অনেক বেশি ট্রাফিক থাকে তাহলে আপনি কোম্পানির এডভার্টাইজিং প্ল্যাটফর্ম ওয়ার্ড অ্যাডশের জন্য আবেদন করতে পারেন পেড মেম্বারদের জন্য এই সুবিধা প্রথম থেকে উপলব্ধ আছে
  • এখানে শুধুমাত্র বিজনেস মেম্বারদের এই গুগল এনালাইটিক্স তাদের ওয়েবসাইটে এড করার অনুমতি আছে
  • যদি আপনি wordpress.com এর terms and conditions follow না করেন তাহলে তারা আপনার ওয়েবসাইটটি যেকোনো সময় ডিলিট করে দিতে পারে
  • এই প্লাটফর্মে তৈরী সমস্ত ফ্রি ওয়েবসাইট এর ফুটারে powered by WordPress.com লিংক দেখতে পাবেন এটিকে রিমুভ করার জন্য আপনাকে বিসনেস প্ল্যান নিতে হবে
  • WordPress.com এ আপনি e-commerce বা membership এর মত হাই কাস্টমাইজেশন ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন না

এছাড়াও আরো অনেক ধরনের লিমিটেশন আছে যেগুলি আপনি এই সার্ভিস ব্যবহার করার পরে বুঝতে পারবেন সবকিছু মিলিয়ে আমরা বলতে পারি এই প্লাটফর্মে আপনি ফ্রী, পার্সোনাল, আর প্রিমিয়াম প্যাকেজের অন্তর্গত প্ল্যান গুলিতে সমস্ত ধরনের ফিচার আপনি পাবেন না যদি আপনি আপনার ওয়েবসাইটে দেশি কন্ট্রোল পেতে চান আর কিছু এডভান্স অপশন চান তাহলে আপনাকে বিজনেস প্ল্যান নিতে হবে

WordPress.com vs WordPress.org কোনটি ভালো

আশা করছি উপরের দেওয়া তথ্যগুলো আপনারা ভালোভাবে পড়লে খুব সহজেই আপনারা সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন কোন প্ল্যাটফর্ম আপনাদের জন্য সঠিক হবে যদি আপনারা ব্লগিং কেবল আপনার রাইটিং স্কিল কে ইমপ্রুভ করার জন্য অথবা আপনার শখ পূরণ করার জন্য করে থাকেন তাহলে WordPress.com দিয়ে শুরু করতে পারেন  আর আপনারা যদি আপনার ব্লগ টিকে বিজনেসের মত দেখে থাকেন তাহলে self hosted WordPress.org আপনার জন্য সবথেকে ভালো হবে আর যদি আপনাদের মনে এখনো কোনো ধরনের প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে আপনারা নিচে দেওয়া কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে জানাতে পারেন আমি আপনাদের উত্তর দেওয়া যথাযথ চেষ্টা করব

আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনারা সন্তুষ্ট হয়েছেন আর যদি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পড়ে ভালো লেগে থাকে তাহলে এই আর্টিকেলটি আপনার বন্ধুদের সাথে অবশ্যই শেয়ার করবেন আর আর যদি আপনারা ব্লগিং সম্বন্ধিত আরও কোন তথ্য পেতে চান অথবা ব্লগিং সম্বন্ধিত অন্য কোন প্রশ্নের উত্তর পেতে চান তাহলে অবশ্যই আমাকে ফেসবুক, এবং ইনস্টাগ্রামে ফলো করুন এবং আমাদের ইউটিউব চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করে আমাদের পাশে থাকুন

এই পোস্টটি কতটা কার্যকর ছিল?

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

এখনো পর্যন্ত কোন রেটিং নেই! তাড়াতাড়ি রেটিং দিন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Scroll to Top