মোবাইল দিয়ে অনলাইনে টাকা আয় কিভাবে করা যায়? (মোবাইল দিয়ে টাকা আয় 100% রিয়েল পদ্ধতি)

মোবাইল দিয়ে টাকা আয়: হ্যালো বন্ধুরা আপনারা কেমন আছেন আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন বন্ধুরা আপনারা কী অনলাইনে পার্টটাইম বা ফুলটাইম কাজ করে টাকা ইনকাম করতে চান? যদি হ্যাঁ তাহলে আপনারা আপনাদের এন্ড্রয়েড মোবাইল থেকে প্রতি মাসে মিনিমাম ১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন হ্যাঁ এটা একদম সত্যি কথা আজ টেকনোলজি এত দ্রুত এবং অ্যাডভান্স হয়ে গিয়েছে যে এন্ড্রয়েড মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করাটা এখন একটা ট্রেডিশন বা ফ্যাশনের মধ্যে পড়ে গেছে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার এমনিতেই অনেক পদ্ধতি রয়েছে কিন্তু আমি আপনাদের এই পোস্টে এমন ৫ টি সহজ উপায়ে সম্বন্ধে বলব যেগুলোর মাধ্যমে আপনারা সত্যিকারে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন

মোবাইল দিয়ে অনলাইনে টাকা আয় কিভাবে করা যায়? (মোবাইল দিয়ে টাকা আয় 100% রিয়েল পদ্ধতি)

আজকের এই আর্টিকেলটি শুরু করার আগে আমি আপনাদের একটি কথা ভালোভাবে বলে দিতে চাই যে এন্ড্রয়েড মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার যে অনলাইন পদ্ধতিগুলোর সম্বন্ধে আমি আপনাদের বলব সেই গুলো আজ অনেকেই ব্যবহার করে অনলাইনে আনলিমিটেড ইনকাম করছেন আর সেটা আপনারাও করতে পারবেন

কিন্তু একটা কথা আপনাদের অবশ্যই মনে রাখতে হবে যে কষ্ট আর কাজ না করে জীবনে কোন কিছুই পাওয়া সম্ভব নয় ঠিক সেই রকমই আপনাদেরকে অনলাইনে মোবাইল থেকে টাকা আয় করার জন্য অল্প হলেও পরিশ্রম করতে হবে

আজকের এই আর্টিকেলের মধ্যে আমি আপনাদের নিচে মোবাইলের মাধ্যমে ইনকামের যে ৫ টি পদ্ধতি সম্বন্ধে বলবো সেগুলো সবই বিশ্বস্ত এবং অনেকেই এগুলো ব্যবহার করে ইনকাম করছেন

আমি আপনাদের নিচে যে পদ্ধতিগুলোর সম্বন্ধে বলব সেই পদ্ধতি গুলো ব্যবহার করে আপনারা কত টাকা আয় করবেন সেটা সম্পূর্ণ নির্ভর করে আপনাদের কাজ আর পরিশ্রমের উপর

কিন্তু এতোটুকু জেনে রাখুন নিচে দেওয়া মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার পদ্ধতি গুলির মাধ্যমে লোকেরা হাজার হাজার টাকা প্রত্যেক মাসে আয় করছেন

চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার ৫ টি সহজ পদ্ধতি সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক

 

এন্ড্রয়েড মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার ৫ টি সহজ পদ্ধতি

আমি আপনাদের ওপরেই বলে দিয়েছি যদি আপনাদের কাছে একটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন থেকে থাকে তাহলে আপনারা অবশ্যই অনলাইনে পার্টটাইম এবং ফুলটাইম কাজ করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন

এর জন্য আপনাদের কি করতে হবে সেই বিষয়ে নিচে আমি বিস্তারিতভাবে ৫টি উপায় সম্বন্ধে আলোচনা করেছি

১) ব্লগিং এবং ওয়েবসাইট এর দ্বারা টাকা আয় করুন

আপনারা কি জানেন মোবাইল থেকে একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানিয়ে আপনারা অনলাইন থেকে আনলিমিটেড টাকা আয় করতে পারবেন যদি না জেনে থাকেন তাহলে এই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জেনে রাখুন

আপনারা অবশ্যই গুগলের blogger.com এর নাম শুনে থাকবেন এই ওয়েবসাইটে একটি ফ্রিতে ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন এবং পরবর্তীকালে যখন আপনাদের ব্লগ বা ওয়েবসাইটের ভিজিটর ট্রাফিক আসা শুরু হয়ে যাবে তখন আপনি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট থেকে টাকা আয় করতে পারবেন

হয়তো আপনারা ভাবছেন যে মোবাইল থেকে ব্লগ বানিয়ে ইনকাম করাটা খুবই কঠিন বা ঝামেলার কাজ

কিন্তু তা একদমই নয়

মোবাইল থেকে একটি ব্লগ বানাতে মাত্র ১০ মিনিট সময় লাগবে তারপর আপনি আপনার ব্লগে ভালো ভালো আর্টিকেল লিখে আপনার ব্লগে ভিজিটর বা ট্রাফিক আনতে পারবেন

যখন আপনার ব্লগে ভিজিটর আসা শুরু হয়ে যাবে তখন আপনি আপনার ব্লগটি গুগোল অ্যাডসেন্সে রেজিস্টার করে টাকা আয় করা শুরু করতে পারবেন

গুগল এডসেন্স গুগলের একটি সার্ভিস যেটি আমাদের ব্লগ বা ওয়েবসাইটে text, link, video এবং image অ্যাডভার্টাইজমেন্ট দেখিয়ে তার বিনিময়ে অনলাইন ইনকাম করার সুযোগ দেয়

বর্তমানে ব্লগ এবং গুগল এডসেন্স এই দুটো সার্ভিস ব্যবহার করে মানুষেরা অনলাইন থেকে এত টাকা আয় করছেন যা আপনারা কল্পনাও করতে পারবেন না

যদি আপনি ব্লগ এবং গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে ইনকাম করতে চান তাহলে এর জন্য আপনাদের কোন ল্যাপটপ বা কম্পিউটার এর প্রয়োজন হবে না

আপনি আপনার স্মার্টফোনের মাধ্যমে একটি ব্লগ বানিয়ে সেই ব্লগে আর্টিকেল লিখে গুগল এডসেন্সের মাধ্যমে আপনার ব্লগ থেকে ইনকাম করতে পারবেন

২) ইউটিউব চ্যানেল বানিয়ে অনলাইনে টাকা আয় করুন

ব্লগিং এর মতই মোবাইল থেকে ইউটিউব চ্যানেল বানিয়ে আপনারা অনলাইন টাকা ইনকাম করতে পারবেন টাকা ইনকাম করার এই অনলাইন পদ্ধতিটি খুবই ভালো বর্তমানে মানুষেরা ইউটিউবে চ্যানেল বানিয়ে মাসে মাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করছেন

ইউটিউব গুগলের একটি ফ্রি সার্ভিস ইউটিউবে চ্যানেল বানানোর জন্য আপনাদের ইউটিউব এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে যেতে হবে ইউটিউব এ একাউন্ট বানানোর জন্য সর্বপ্রথম আপনাদের একটি জিমেইল একাউন্টের প্রয়োজন হবে

কারণ আমি আপনাদের আগেই বলে দিয়েছি ইউটিউব গুগোল এর প্রোডাক্ট তাই ইউটিউবে লগইন করতে জিমেইল একাউন্ট আর পাসওয়ার্ড এর প্রয়োজন হবে

আপনাদের জিমেইল অ্যাকাউন্ট দিয়ে ইউটিউবে লগইন করার পর আপনি ইউটিউবে একটি ফ্রি চ্যানেল বানাতে পারবেন এবং আপনার চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করতে পারবেন

আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করার পরেই আপনি টাকা আয় করার সুযোগ পাবেন একটা কথা অবশ্যই মনে রাখবেন আপনি যে ভিডিও আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করবেন সেটা আপনার নিজের বানানো অরিজিনাল ভিডিও হতে হবে অন্য কারো ভিডিও আপলোড করলে হবে না

যদি আপনি অন্য কারো ভিডিও আপনার চ্যানেলে আপলোড করেন তাহলে সেটা কপিরাইট ভিডিও হিসেবে ধরা হবে

এর ফলে আপনি অন্যের কপি করা ভিডিও দিয়ে ইনকাম করার কোন অপশন পাবেন না

তাই আপনি যে ভিডিও আপনার ইউটিউব চ্যানেলে আপলোড করবেন সেটা পুরোপুরি আপনার নিজের বানানো অরিজিনাল ভিডিও হতে হবে

ইউটিউবে কেমন ভিডিও আপলোড করবেন? এই প্রশ্নটা আপনাদের মনে অবশ্যই আসছে তাইতো?

আপনি আপনার ইউটিউব চ্যানেলে যে কোন ধরনের ভিডিও আপলোড করতে পারেন যেমন টিউটোরিয়াল ভিডিও, কমেডি ভিডিও, মোবাইল রিভিউ বা অন্যান্য কোন বিষয়ের উপর

যদি আপনারা তাড়াতাড়ি সফলতা পেতে চান তাহলে আপনারা আপনাদের মোবাইল থেকেই টিউটোরিয়াল ভিডিও বানিয়ে আপনার চ্যানেলে আপলোড করুন

কিন্তু একটি কথা অবশ্যই মনে রাখবেন যে ধরনের ভিডিও বানান না কেন সেটি আপনারা নিজেরাই বানাবেন আর আপনার ভিডিওর মধ্যে যে কোন অংশকে যেন অন্য কোন ভিডিও কপি করা পাঠ বা অংশ না থাকে

শুধুমাত্র এই রকম ভাবে অরিজিনাল ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড করতে থাকলে খুব দ্রুত আপনারা টাকা আয় করা শুরু করতে পারবেন

ধরুন আপনারা ইউটিউব চ্যানেল বানালেন এবং আপনার ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করলেন কিন্তু আপনারা টাকা কিভাবে ইনকাম করবেন? আপলোড করা ভিডিও থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যাবে? হয়তো আপনারা এখন এই কথাটি ভাবছেন তাই তো?

ইউটিউব থেকে টাকা কিভাবে আয় করবেন?

আসলে যখন আপনারা আপনাদের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করেন তখন আপনার আপলোড করা ভিডিও ইউটিউব এর ওয়েবসাইটে আসা হাজার হাজার মানুষেরা অনলাইনে দেখে

ঠিক তখনি আপনার ভিডিও থেকে টাকা ইনকাম করার সুযোগটা এসে পড়ে

ইউটিউবে মনিটাইজেশন নামের একটি অপশন রয়েছে এই মনিটাইজেশন অপশনটি যখন আপনি এপ্লাই করে enable করতে পারবেন তখন থেকে গুগল অ্যাডসেন্স থেকে কিছু অ্যাডভার্টাইজমেন্ট আপনার ভিডিওতে দেখানো হবে

আর মানুষেরা যখন আপনার ভিডিও দেখবে তখন আপনার ভিডিও দেখার আগে ওই অ্যাডভার্টাইজমেন্ট গুলো আগে দেখবেন তখন আপনি ওই অ্যাডভার্টাইজমেন্ট গুলোর বদলে টাকা ইনকাম করতে পারবেন এটাই হলো ইউটিউব থেকে অনলাইনে টাকা আয় করার উপায়

বিশ্বাস করুন যদি আপনি ৫০ টি ভিডিও আপলোড করে ফেলেন আর যদি আপনার প্রতিটি ভিডিওতে প্রতিদিন ৩০ টি করে ভিউ হয় তাহলে আপনি মোট ৫০*৩০=১৫০০ ভিউ পাবেন প্রতিদিন

আর প্রতিদিন যদি আপনার ভিডিওগুলি ১৫০০ বার মানুষেরা দেখে তাহলে যদি কম করেও ০.২ ডলার করে প্রতি adview তে দেওয়া হয় তাহলে পাবেন ০.২*১৫০০= ৩০০ ডলার

হ্যাঁ আপনারা একদম ঠিক ভাবছেন এটা অনেক ইনকাম বর্তমানে যদি এক ডলার সমান ৭০ টাকা হয় তাহলে ৩০০ ডলার*৭০= ২১০০০ টাকা

বর্তমানে অনেকেই ইউটিউব থেকে এর অনেক বেশি টাকা প্রতিদিন ইনকাম করছেন আর এই সমস্ত কাজ গুলো আপনারা কেবলমাত্র আপনাদের মোবাইল থেকে করতে পারবেন যদি আপনাদের কাছে কোন কম্পিউটার বা ল্যাপটপ না থেকে থাকে

তবে একটি কথা অবশ্যই মনে রাখবেন একদিনে কোন কিছুই সম্ভব নয় আপনাদেরকে প্রচুর পরিশ্রম করতে হবে প্রতিদিন মন দিয়ে এবং উৎসাহ রেখে কাজ করে যেতে হবে তখনই আপনি ইউটিউব থেকে সফলতা পাবেন

৩) অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন থেকে টাকা আয় করুন

হ্যাঁ আপনারা একদম ঠিক শুনেছেন বর্তমানে আপনারা বিভিন্ন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন কিন্তু নিজেদের মোবাইল থেকে টাকা আয় করার এই পদ্ধতিটির মাধ্যমে আপনারা খুব একটা বেশি ইনকাম করতে পারবেন না

যদি আপনারা একজন ছাত্র, গৃহবধূ বা retired person হন তাহলে আপনারা এক্সট্রা কিছু ইনকাম করার জন্য এই পদ্ধতিটি ব্যবহার করতে পারেন 

Google Play Store এ গিয়ে আপনারা আর্নিং অ্যাপ্লিকেশন, অনলাইন ইনকাম অ্যাপ্লিকেশন বা ফ্রি রিচার্জ অ্যাপ্লিকেশন লিখে সার্চ করলে আপনারা বিভিন্ন ধরনের অ্যাপ্লিকেশন পেয়ে যাবেন যেগুলো আপনাদেরকে বিভিন্ন কাজের জন্য সত্যিকারের টাকা দেবে

এরকম টাকা আয় করার কিছু ভালো অ্যাপ্লিকেশন হলো “MCent, Truebalance, Pocket Money, TaskBucks,” ইত্যাদি আরো অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশন রয়েছে

এই অ্যাপ্লিকেশনগুলো আপনারা গুগল প্লে স্টোর থেকে ফ্রিতে ডাউনলোড করে মোবাইল থেকে টাকা আয় করতে পারবেন

এই টাকা আয় করার অ্যাপ্লিকেশনগুলো আপনাদেরকে এমনি এমনি টাকা দেয় না এই অ্যাপ্লিকেশনগুলোর ডাউনলোড করার পর আপনাদেরকে বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে হয়

যেমন – অ্যাপ্লিকেশন ডাউনলোডিং, অ্যাপ্লিকেশন রেফার করা, ভিডিও দেখা ইত্যাদি এই কাজগুলো করার বিনিময়ে আপনাদেরকে কিছু টাকা এই অ্যাপ্লিকেশনগুলোর তরফ থেকে দেওয়া হয়

আপনারা যে টাকা ইনকাম করবেন সেই টাকা আপনার বিভিন্নভাবে পেতে পারেন যেমন – paytm cash রূপে, ফ্রি মোবাইল রিচার্জ রূপে, ফ্রি ডিস টিভি রিচার্জ রূপে, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ট্রান্সফার করে ইত্যাদি

৪) OLX এবং QUIKR এ পুরনো জিনিসপত্র বিক্রি করে টাকা আয় করুন

যদি আপনি মোবাইল থেকে এক্সট্রা টাকা ইনকাম করার উপায় খুজছেন তাহলে আপনারা OLX এবং Quikr এর মত ওয়েবসাইটের সাহায্য নিতে পারেন

OLX এবং Quikrআসলে এমন ধরনের ওয়েবসাইট যেখানে আপনারা পুরনো যেকোনো জিনিস পত্র বা প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারবেন তাতে সেটা যে ধরনের প্রোডাক্ট হোক না কেন যেমন বাইক, মোবাইল, টিভি, কম্পিউটার, ল্যাপটপ বা অন্যান্য যেকোনো ধরনের জিনিস

আপনারা এই দুটি ওয়েবসাইটে গিয়ে পুরনো জিনিসপত্র বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারেন

আপনাদের বাড়িতে যদি তেমন কোন পুরনো জিনিসপত্র থেকে থাকে তাহলে আপনারা সেই সমস্ত পুরোনো জিনিস গুলো বিক্রি করতে পারবেন আর যদি আপনাদের কোন পুরনো বাইক বা গাড়ি বিক্রি করার দোকান থেকে থাকে বা আপনাদের চেনা পরিচিত কোন রকম থাকে তাহলে আপনারা তাদের কাছ থেকে কম দামে জিনিস কিনে সেই জিনিস গুলো আবার বেশি দামে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন

আর এই সমস্ত কাজ গুলো আপনারা আপনাদের মোবাইল থেকেই করতে পারবেন

আপনারা যে জিনিসপত্র বিক্রি করতে চান সেটার ছবি তুলে OLX এবং Quikr ওয়েবসাইটে আপলোড করে সেই জিনিসের দাম সহ তার বিস্তারিত বিষয় লিখে দিন যেগুলো আপনারা বিক্রি করতে চান

এরপর কিছুসময়ের মধ্যেই কাস্টমার পেয়ে যাবেন এইভাবে আপনারা মোবাইল থেকে পুরনো জিনিস বিক্রি করে টাকা আয় করতে পারবেন

৫) Short Link ওয়েবসাইট থেকে অনলাইনে টাকা আয় করুন

বন্ধুরা আপনারা কী Short Link ওয়েবসাইটের সম্বন্ধে জানেন যদি না জেনে থাকেন তাহলে আপনারা জেনে রাখুন  নিজেদের মোবাইল থেকে টাকা আয় করার এটি অনেক সোজা এবং বিশ্বস্ত মাধ্যম এখান থেকে টাকা আয় করার জন্য আপনাদের বেশি কিছু করার প্রয়োজন হবে না

আপনাদের প্রথমে কিছু Short Link ওয়েবসাইটে গিয়ে একাউন্ট বানিয়ে রেজিস্টার করতে হবে কিছু বিশ্বস্ত এবং ভালো Short Link ওয়েবসাইটের নাম হল adf.ly, Linkshrink.net, Shorte.st ইত্যাদি

আপনারা উপরে দেওয়া ওয়েবসাইট গুলোর মধ্যে যেকোনো একটিতে একাউন্ট বানাতে পারেন

এবার আমি আপনাদের বলব আপনারা এই Short Link ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে আপনারা কিভাবে টাকা আয় করবেন আসলে এই সমস্ত ওয়েবসাইটগুলোকে link shortener website বলা হয়

এই সমস্ত ওয়েবসাইটে আপনাদেরকে একটি বক্স দেওয়া হয় যেখানে আপনারা যে কোন ওয়েবসাইটের URL address কে কপি করে সেটিকে এই URL shortener ওয়েবসাইটগুলোর মাধ্যমে ছোট করতে পারবেন

আপনারা ইন্টারনেট থেকে যে কোন আর্টিকেল, ভিডিও, গান বা যেকোনো ওয়েবসাইটের URL address কপি করে সেটিকে এই সমস্ত URL shortener ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে ছোট করে নিতে পারবেন

যেমন আপনি যদি আপনার ব্লগের কোন আর্টিকেল এর URL link ছোট করেন তাহলে সেটা এমন দেখতে হবে যে কেউ দেখে সেটা বুঝতে পারবে না যে এটা কার ওয়েবসাইট কিন্তু আসল কথা হল এই URL shortener ওয়েবসাইট থেকে টাকা কিভাবে ইনকাম করবেন হয়তো আপনারা এটাই ভাবছেন

আসলে আপনারা যখন কোন ওয়েবসাইট বা ব্লগের বা কোন ইউটিউব ভিডিওর URL address এই URL shortener ওয়েবসাইটে গিয়ে ছোট করবেন তখন ওই লিঙ্ক এড্রেসটি ছোট হবার সাথে সাথে ওখানে কিছু অ্যাডভার্টাইজমেন্ট লাগিয়ে দেওয়া হয়

যার ফলে যখন কেউ আপনার ছোট করা URL address এ ক্লিক করবে তখন অরিজিনাল ওয়েবসাইটে যাবার আগে কিছু অ্যাডভার্টাইজমেন্ট দেখানো হবে

যার ফলে আপনাকে প্রতি vaild adview এর ওপর কিছু টাকা দেওয়া হবে

কোন কোন Link shortener ওয়েবসাইট আপনাকে প্রতি হাজার ভিউতে ৫ থেকে ১৫ ডলার করে দেবে আবার কোন কোন ওয়েবসাইট ৫ থেকে ১০ ডলার পর্যন্ত দেবে কিন্তু এই পদ্ধতির সাহায্যে আপনার ইনকাম খুবই ভালো হবে

এই সমস্ত কাজ গুলো আপনারা আপনাদের মোবাইল দিয়ে করতে পারবেন আপনাদের শুধুমাত্র ইন্টারেস্টিং আর ভালো ভালো ভিডিও, আর্টিকেল ওয়েবসাইটের url address গুলোকে এই Link shortener ওয়েবসাইটে গিয়ে ছোট করতে হবে আর যতটা সম্ভব হবে আপনাদের ফেসবুক গ্রুপ বা হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ বা অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়াতে ওই ছোট লিংক শেয়ার করতে হবে

এরপর যত ভিজিটর আপনার ওই লিংকে ক্লিক করে আপনার দেওয়া URL address এ পৌঁছাবে তখন তাদের অ্যাডভার্টাইজমেন্ট দেখানো হবে আর এর বদলে আপনাদের কে টাকা দেওয়া হবে অর্থাৎ আপনারা টাকা আয় করবেন

আমার শেষ কথা

তো বন্ধুরা আজ আমি আপনাদের ৫ টি সহজ এবং 100%  রিয়েল পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করলাম যার মাধ্যমে আপনারা অনলাইনে আপনাদের মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে পারবেন এর মধ্যে আমি আপনাদের এমন কিছু পদ্ধতি সম্পর্কে বলেছি যেগুলো আমি নিজে ব্যবহার করে ইনকাম করেছি আবার এমন কিছু পদ্ধতি সম্পর্কে বলেছি যে গুলো আমি ব্যবহার না করলেও অনেকের মুখে শুনেছি যে তারা এই পদ্ধতিগুলোর সাহায্যে তাদের মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করেছেন

আমি আপনাদের এমন পদ্ধতি সম্পর্কে বলেছি যেমন ব্লগিং বা ইউটিউব চ্যানেল এর মাধ্যমে আপনারা এতটাই ইনকাম করবেন যে আপনাদের অন্য কোন চাকরি বা ব্যবসা করার কোন প্রয়োজন হবে না বর্তমানে অনেক মানুষ আছেন যারা এই সমস্ত পদ্ধতিগুলোর সাহায্যে ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করছেন

আশা করছি বন্ধুরা আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনারা বুঝতে পেরেছেন মোবাইল দিয়ে টাকা আয় কিভাবে করবেন আশা করি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনাদের খুবই ভালো লেগেছে যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে এই আর্টিকেলটি কে আপনাদের সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে ভুলবেন না যাতে অন্যরাও ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করতে পারে ধন্যবাদ

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Scroll to Top
Copy link