ডিজিটাল মার্কেটিং(Digital Marketing) কি? এর প্রকার এবং লাভ

5
(1)

হ্যালো বন্ধুরা আপনারা কেমন আছেন আশা করি আপনারা সবাই ভাল আছেন আজ আমি আপনাদের এই পোষ্টের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং কি আর এর কি কি সুবিধা রয়েছে এই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে বলবো

বন্ধুরা ডিজিটাল মার্কেটিং শব্দটি বেশ কিছুদিন আগে থেকে বেশি শোনা যাচ্ছে আজকের সময় টি সম্পূর্ণভাবে ডিজিটাল হয়ে গিয়েছে আর এই সময়ে যদি আপনারা ডিজিটাল মার্কেটিং কি না জেনে থাকেন তাহলে হয়তো আপনারা অনেক পিছনে পড়ে রয়ে গিয়েছেন

আপনারা যদি নিজেদেরকে সময়ের সাথে সাথে না বদলে থাকেন তাহলে আপনাদের সফলতা অনেক পরিমাণে কমে যায়

এখন আর সেই সময় নেই যে ঘরে ঘরে গিয়ে আপনার প্রোডাক্টের প্রচার করবেন এতে আপনার সময় আর টাকা দুটোই খরচ হয় এই পদ্ধতিতে আপনারা বেশি মানুষের কাছে পৌঁছাতে পারবেন না

এই ক্ষেত্রে সব থেকে ভাল মাধ্যম হলো ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাহায্যে যেকোনো কোম্পানি টার্গেট অডিয়েন্স পর্যন্ত খুব সহজেই পৌঁছে যেতে পারে কিছু বছর আগে বিজ্ঞাপন সাধারণত টিভি-রেডিও অথবা নিউজ পেপারে ছাপানো হত কারণ সেইখানে বেশি মানুষের ভিড় ছিল

এতে বিজ্ঞাপন দেওয়া কোম্পানির অনেক বেশি লাভ হতো কিন্তু বর্তমান সময়ে বেশিরভাগ মানুষ ইন্টারনেট আর সোশ্যাল মিডিয়াতে বেশি একটিভ থাকেন এইজন্য আজ বেশিরভাগ মানুষ ডিজিটাল মার্কেটিং এর সম্বন্ধে জানতে চান কারণ এর সাথে আপনারা টাকা ইনকাম করতে পারবেন

তাই আমি ভাবলাম আপনাদের এই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে তথ্য দেওয়া যাক আপনারা যদি এই পোস্টটি মনোযোগ সহকারে শেষ পর্যন্ত পড়েন তাহলে আপনাদের মনে ডিজিটাল মার্কেটিং সম্বন্ধিত যত ধরনের প্রশ্ন রয়েছে তার উত্তর পেয়ে যাবেন

 

ডিজিটাল মার্কেটিং কি? (What is Digital Marketing In Bangla)

ডিজিটাল মার্কেটিং(Digital Marketing) কি? এর প্রকার এবং লাভ

ডিজিটাল মার্কেটিং দুটি শব্দ মিলে তৈরি হয়েছে প্রথম Digital আর দ্বিতীয়টি Marketing এখানে ডিজিটাল এর অর্থ হল ইন্টারনেটের সাহায্যে মানুষ পর্যন্ত পৌছানো আর মার্কেটিং এর অর্থ হল আপনার প্রোডাক্ট কে মানুষের কাছে পৌছানো এই দুটোর সম্পূর্ণ অর্থ হল ইন্টারনেটের সাহায্যে যেকোনো প্রডাক্ট কে বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানো

এটিকে ডিজিটাল মার্কেটিং বলা হয়

তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং বলতে আমরা কি বুঝি? এর আসল অর্থ কি?

ডিজিটাল শব্দের অর্থ হল ইন্টারনেটের সাথে জড়িত এবং মার্কেটিং শব্দের অর্থ হলো যে কোন প্রোডাক্ট বা সার্ভিস গ্রাহকদের কাছে প্রচার করা বা মানুষদেরকে সেই বিষয়ে জানানো

তাই ডিজিটাল মার্কেটিং এর অর্থ খুবই সোজা ডিজিটাল মার্কেটিং সেই সমস্ত ধরনের মার্কেটিং বা প্রচারের প্রচেষ্টা বা মাধ্যম কে বোঝানো হয় যেগুলো বিশেষভাবে একটি ইলেকট্রনিক ডিভাইস বা ইন্টারনেটের ব্যবহার করে করা সম্ভব

আজ অনেক কোম্পানিই বা ব্যবসা নিজেদের উদ্দেশ্য সাধনের উপায় হিসেবে এই ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমকে ব্যবহার করছেন এই গুলোর মধ্যে বিশেষভাবে – সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, সোশ্যাল মিডিয়া, ইমেইল, অনলাইন বিজ্ঞাপন এবং নিজস্ব একটি ওয়েবসাইট এগুলোর জন্য সবথেকে ভালো

এই মাধ্যম গুলি ব্যবহার করে বর্তমানে যে কোন কোম্পানি তাদের ব্যবসা বা পণ্য খুবই কম খরচে দেশ-বিদেশের যেকোন জায়গায় যেকোন শহর-গ্রামে তাদের পণ্যের প্রচার বা মার্কেটিং করছেন এবং ইন্টারনেটের মাধ্যমে লক্ষ গ্রাহক পেয়ে যাচ্ছেন

এটি হলো ডিজিটাল মার্কেটিং এবং বর্তমানে এই মার্কেটিং পদ্ধতি অনেক বেশি শক্তিশালী মাধ্যম

বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহার করা মানুষদের সংখ্যা অনেক গুন বেড়ে গিয়েছে এবং পরবর্তী সময়ে এর ব্যবহার আরো বাড়বে

বর্তমানে লোকেরা যেকোনো জিনিস ইন্টারনেটে সার্চ করেন বা ভিডিও দেখেন বা সোশ্যাল মিডিয়া সাইটগুলিতে নিজেদেরকে সময় দেন বর্তমান সময়ে মানুষেরা ইন্টারনেটকে একটানা ব্যবহার না করে থাকতে পারেন না

এমনিতেই বিভিন্ন কোম্পানি বা বিজনেস বাস সার্ভিস প্রচার বা মার্কেটিং করার জন্য ইন্টারনেট থেকে আর কোনো ভালো সুযোগ বা জায়গা পাবেন না এখানে সব ধরনের চাহিদা এবং ইচ্ছেরা কাম লক্ষ্যবস্তু গ্রাহকের কোন সীমাবদ্ধতা নেই

এই সমস্ত কাজ গুলো করা সম্ভব ইন্টারনেট দ্বারা আর ইন্টারনেটের সাহায্যে এই মার্কেটিং প্রক্রিয়াকে আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং বলে থাকি

যদি আমরা সহজ ভাষায় বলি তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে আপনি আপনার ব্যবসার সাথে জড়িত কাস্টমার বা লক্ষ গ্রাহক এর সাথে সংযোগ স্থাপন করতে পারবেন যেখানে তারা অনলাইন ইন্টারনেটে বেশি সময় অতিবাহিত করছেন

এবং এই কাজগুলো বিভিন্ন মার্কেটিং tools ব্যবহার করে করতে পারবেন যেমন ইমেইল মার্কেটিং, ডিজিটাল অ্যাডভার্টাইজমেন্ট, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং, সার্চ ইঞ্জিন বা ব্লগ বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনি আপনার বিজনেস ব্র্যান্ড তৈরি করতে পারবেন

ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন প্রকার (Types Of Digital Marketing)

ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন প্রকার (Types Of Digital Marketing)

বন্ধুরা এটির বিভিন্ন প্রকার রয়েছে কিন্তু এই পোস্টে আমি কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রকারের সম্বন্ধে কথা বলব কারন এগুলো আপনার বিশেষ বিজনেসকে অনেক গুন বাড়াতে পারে এইজন্য আপনাদের এই বিষয়টির সম্বন্ধে ভালোভাবে বুঝে নিতে হবে

বিভিন্ন কোম্পানি বা বিজনেস owner অনেক মাধ্যম বা প্রক্রিয়া ব্যবহার করেন তাদের প্রোডাক্ট বা সার্ভিস অনলাইন ইন্টারনেটের মাধ্যমে মার্কেটিং করার জন্য এই সমস্ত প্রকার গুলির মধ্যে যেগুলো সেগুলো সম্বন্ধে আজ আমরা বিস্তারিতভাবে আলোচনা করব

  • সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং: এখন বেশিরভাগ মানুষ সোশ্যাল মিডিয়া এর ব্যবহার করেন আর এটি যেকোন সার্ভিস বা প্রডাক্ট কে প্রমোট করার জন্য সবথেকে ভালো আর সহজ পদ্ধতি শুধুমাত্র আপনাদের কোনো ব্যক্তিকে hire করতে হবে যাদের কাছে ভালো সংখ্যায় অডিয়েন্স রয়েছে আর তারা আপনার প্রোডাক্ট কে মানুষের কাছে পৌঁছে দেবে

আর যদি আপনারা কাউকে hire করতে না চান তাহলে আপনারা paid প্রমোশন করতে পারেন এর অর্থ হলো সামান্য কিছু টাকা লাগিয়ে সেই সমস্ত প্রোডাক্ট কে মানুষের কাছে সহজেই পৌঁছে দিতে পারবেন এই ধরনের মার্কেটিং কে সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং বলা হয় এর সব থেকে ভালো উদাহরণ হল – Facebook, Instagram, Twitter ইত্যাদি

  • সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটিং: যখন আপনারা গুগলে কোন কিছু সার্চ করেন তখন আপনাদেরকে সেই সম্বন্ধে কিছু অ্যাড দেখানো হয় সেদিকে সার্চ ইঞ্জিন মারকেটিং বলা হয় এটি paid মাধ্যম যার সাহায্যে আমরা আমাদের প্রোডাক্ট এর এড তৈরি করতে পারি আর সেটিকে দেখাতে পারি যাদের প্রয়োজন রয়েছে

কিছু মানুষ এটি করার জন্য ওয়েবসাইট, ব্লগ অথবা মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনের সাহায্য নিয়ে থাকেন অনলাইন যে কোন জিনিসকে প্রমোট করার জন্য সবথেকে ভাল মাধ্যম হলো Search Engine Marketing(SEM) আর এটিকে PPC(Pay Per Click) ও বলা হয়ে থাকে

এখানে যত বেশি ক্লিক হবে তত টাকা দিতে হবে আর এর সাহায্যে টার্গেট অডিয়েন্স পর্যন্ত খুব সহজেই পৌঁছানো যায়

  • অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং: এটি যেকোন ডিজিটাল মার্কেটিং এর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ অংশ যখন কোন কোম্পানি তাদের প্রোডাক্ট বাজারে নিয়ে আসে তখন তাদের বেশিরভাগ লক্ষ্য থাকে বেশি বেশি মানুষ যেন তাদের প্রোডাক্ট সম্বন্ধে জানে এই জন্য এই ধরনের কোম্পানিরা তাদের টাকা দেয় যারা তাদের প্রডাক্ট কে অনলাইন প্রমোট করতে পারবে

এখানে যত ট্রাফিক কনভার্ট হবে সেই হিসাবে টাকা দেওয়া হয় আর এটি যেকোন কোম্পানি শুরুর সময় করে থাকে আর যারা তাদের প্রডাক্ট কে প্রমোট করবে তাদের টাকা দেয়

  • Email মার্কেটিং: এটি ডিজিটাল মার্কেটিং এর খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ এটির বেশিরভাগ ব্যবহার করা হয় Business Lead Generate করার জন্য এটি একটি paid মাধ্যম এর ফ্রী মাধ্যম রয়েছে কিন্তু সেই মাধ্যম ব্যবহার করে বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানো যায় না

এমন অনেক বড় বড় কোম্পানি রয়েছে যারা হাজার ডলার খরচ করেন শুধুমাত্র মানুষের কাছে পৌঁছানোর জন্য কারণ এটি personalized promotion এর সব থেকে ভাল মাধ্যম এর সাহায্যে যে কোন ব্যক্তির সমস্যা পর্যন্ত সহজে পৌঁছানো যায় আর এটির অনেক সম্ভাবনা রয়েছে যে সে আপনার প্রোডাক্ট কিনবে

  • ভিডিও মার্কেটিং: যদি আপনাদের কোন ইউটিউব চ্যানেল থাকে বা যদি আপনারা কোন ইউটিউব চ্যানেল বানান এবং সেই চ্যানেলে যদি আপনাদের বিজনেস বা ব্র্যান্ডের ব্যাপারে ভিডিও বানিয়ে আপনার প্রোডাক্ট কে অনেক মানুষের কাছে পৌছে দিতে পারেন বর্তমানে অনেক কোম্পানি বা বিজনেস ওনার ভিডিওর মাধ্যমে তাদের ব্যবসার প্রচার বা প্রমোশন করছেন বর্তমানে যদি আপনারা ইউটিউবে গিয়ে যে কোন কোম্পানির সম্বন্ধে সার্চ করে দেখেন তাহলে আপনারা তাদের অফিশিয়াল প্রোডাক্ট বাস সার্ভিস এর সম্বন্ধে বিভিন্ন ভিডিও পেয়ে যাবেন  বর্তমানে গুগল সার্চের পর দ্বিতীয় সবথেকে বড় সার্চ ইঞ্জিন হলো ইউটিউব এখানে আপনারা প্রতিদিন লক্ষ লক্ষ মানুষের ভিডিও দেখতে পাবেন বর্তমানে অনেক কোম্পানি এবং তাদের জিনিস বা প্রোডাক্টের প্রমোশন করার জন্য ভিডিও বানিয়ে ইউটিউবে ছাড়েন বর্তমানে এটি অনেক লাভজনক প্রমাণিত হয়েছে
  • ব্লগ বা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে মার্কেটিং: বর্তমানে আপনারা সব ধরনের কোম্পানির একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট দেখতে পেয়ে যাবেন এর কারণ হলো আজ সব মানুষেরা তাদের যেকোনো ধরনের প্রশ্নের উত্তর ইন্টারনেটে সার্চ করেন যদি আপনারা আপনার কোম্পানি বিজনেস বা প্রোডাক্টের সাথে জড়িত প্রশ্নের উত্তর সমাধান একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানিয়ে ওই ওয়েবসাইটে আর্টিকেল এর মাধ্যমে সেই সমস্যার সমাধানের পথ করে দেন তাহলে সেই ব্লগ বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর ট্রাফিক আপনার প্রোডাক্ট প্রমোশন করার জন্য খুবই একটি ভাল মাধ্যম হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে

এছাড়াও ওয়েবসাইট বা ব্লগের মাধ্যমে যেকোনো জিনিস, প্রোডাক্ট, সার্ভিস বা কোম্পানির ব্যাপারে মানুষের ঘরে বসেই ইন্টারনেটের মাধ্যমে জেনে নিতে পারবে ভাই বর্তমানে যে কোন জিনিসকে অনলাইন মার্কেটিং করাটা অনেকটা গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে

বর্তমানে প্রতিটি ব্র্যান্ড বা বিজনেস ওনার তাদের বিজনেস বা ব্র্যান্ডের জন্য একটি ব্লগ বা ওয়েবসাইট বানিয়ে দিয়েছেন এবং এটি ডিজিটাল মার্কেটিং এর খুবই জরুরী সাধাণ হিসেবে প্রমাণিত হয়েছে

তাহলে বন্ধুরা আশা করছি আপনারা ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন প্রকারভেদ সম্পর্কে বিস্তারিত ভাবে জেনে গিয়েছেন

এগুলো ছাড়াও আরো অন্যান্য মাধ্যম রয়েছে যেগুলো ডিজিটাল মার্কেটিং বা ইন্টারনেট মার্কেটিং এ ব্যবহার করা হয়

কিন্তু বর্তমানে আমি আপনাদের যে প্রকার গুলোর সম্বন্ধে বললাম সেগুলো খুবই বেশি পরিমাণে ব্যবহার করা হচ্ছে

ডিজিটাল মার্কেটিং এর লাভ কি (Benefits of Digital Marketing)

ডিজিটাল মার্কেটিং এর লাভ কি (Benefits of Digital Marketing)

বর্তমানে ইন্টারনেট এবং ডিজিটাল টেকনোলজি দুনিয়াতে যদি আপনি আপনার বিজনেস বা যে কোন প্রোডাক্ট কে মার্কেটিং করার কথা ভাবছেন তাহলে আপনার ডিজিটাল মার্কেটিং এর ব্যাপারে জেনে নেওয়াটা খুবই জরুরী

কারণ পুরনো সাধারণ মার্কেটিং এর মাধ্যম এর তুলনায় ডিজিটাল মার্কেটিং এর পদ্ধতিতে অনেক লাভ এবং সুযোগ-সুবিধা হয়ে গিয়েছে চলুন তাহলে নিচে আমরা ডিজিটাল মার্কেটিং এর কি কি লাভ রয়েছে সেই বিষয়ে বিস্তারিত ভাবে জেনে নিই

ডিজিটাল মার্কেটিং এর লাভ –

  1. ডিজিটাল মার্কেটিং বর্তমানে যে কোন জিনিস, কোম্পানি পণ্য বা সার্ভিস এর মার্কেটিং এর জন্য সেরা এবং শক্তিশালী মাধ্যম
  2. সাধারণ বা পুরোনো মার্কেটিংয়ের তুলনায় এই মার্কেটিংয়ে অনেক কম খরচেই অনেক বেশি লাভ হওয়া সম্ভব
  3. ডিজিটাল মার্কেটিং করে আপনি আপনার লক্ষ্যবস্তু গ্রাহককে টার্গেট করে মার্কেটিং করতে পারবেন
  4. এই মাধ্যমে মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে কোথাও যেতে হবে না বা আপনাকে এর জন্য কোন কর্মচারী রাখতে হবে না আপনি এই পুরো কাজটি কেবল একটি কম্পিউটার বা মোবাইল এর সাহায্যে ইন্টারনেটের মাধ্যমে করতে পারবেন
  5. অনেক কম সময়ে ইন্টারনেটের মাধ্যমে আপনি আপনার ব্র্যান্ড, বিজনেস বা প্রডাক্ট কে অনেক মানুষের কাছে প্রচার বা মার্কেটিং করতে পারবেন
  6. টার্গেটেড অডিয়েন্সকে এই মাধ্যমে ব্যবহার করা হয় এবং এই মাধ্যমে ইন্টারনেটের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে মার্কেটিং করার ফলে খুবই কম সময়ে ভালো এবং লাভজনক পরিনাম পাওয়া যায়
  7. আপনি আপনার পণ্য বিক্রি করতে চাইছেন বা আপনার বিজনেস এবং ব্র্যান্ড তৈরি করতে চাইছেন তাহলে ডিজিটাল মার্কেটিং এর মাধ্যমে এই কাজগুলো খুবই কম সময়ে করা সম্ভব
  8. ইন্টারনেটের মাধ্যমে এই মার্কেটিং করা সম্ভব এই জন্য অনেক সহজে এবং খুবই কম সময়ে লাভজনকভাবে আপনার বিজ্ঞাপন বা অন্য মানুষের কাছে পৌঁছে যায়

তাহলে বন্ধুরা আপনারা বুঝতে পেরেছেন ডিজিটাল মার্কেটিং এ কি কি লাভ রয়েছে আমি আমার ধারণা মতে আপনাদের সাথে সেই বিচারধারা গুলো শেয়ার করলাম

 

ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে শিখবেন?

ডিজিটাল মার্কেটিং কিভাবে শিখবেন

যদি আপনি ডিজিটাল মার্কেটিং শিখে এই ফিল্ডে ক্যারিয়ার বানানোর কথা ভাবছেন তাহলে এটি আপনার জন্য খুবই সুন্দর সুযোগ হিসেবে প্রমাণিত হতে পারে

বর্তমানে ইন্টারনেটের ব্যবহার অনেকগুণ বেড়ে গিয়েছে এবং পরবর্তী সময়ে এর ব্যবহার আরো কয়েকগুণ বেড়ে যাবে এর ফলে ডিজিটাল মার্কেটিং প্রক্রিয়ায় ব্যবহারও অনেকাংশে বেড়ে যাবে এর ফলে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সাথে জড়িত কোম্পানিতে চাকরির সুযোগ অনেকাংশে বাড়বে

যেমন ধরুন বিভিন্ন হোস্টিং কোম্পানি,অনলাইন বিজ্ঞাপনের কোম্পানি,ওয়েব ডিজাইনিং কোম্পানি, ইমেইল মার্কেটিং কোম্পানি, সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন, কনটেন্ট মার্কেটিং, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং ইত্যাদি এরকম আরো অন্যান্য কোম্পানি আছে যেখানে আপনারা চাকরি পেতে পারেন যদি আপনাদের ডিজিটাল মার্কেটিং সম্বন্ধে ভালো জ্ঞান থাকে বা আপনারা যদি কোন ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স করে থাকেন তাহলে তার সার্টিফিকেট থেকে থাকে

তাই ইন্টারনেট মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে যদি আপনি আপনার ক্যারিয়ার বাড়ানোর কথা ভেবে থাকেন তাহলে আমার মতে আপনার সিদ্ধান্তটি অনেক বেশি লাভজনক হবে

যদি আপনারা চান তাহলে আপনারা যে কোন ইনস্টিটিউট থেকে ডিজিটাল মার্কেটিং কোর্স শিখে সার্টিফিকেট নিতে পারেন

এছাড়া আপনারা Google Digital Garage ওয়েবসাইট থেকে অনলাইন ইন্টারনেটের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে পারেন

যদি আপনারা এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখেন তাহলে আপনাদের পরীক্ষা নেয়া হবে এবং পরীক্ষার শেষে আপনাদের একটি সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে জেটি দেখিয়া আপনি চাকরির জন্য অ্যাপ্লাই করতে পারেন

এছাড়াও আরো অন্যান্য অনলাইন ওয়েবসাইট এবং ইউটিউবে ভিডিও উপলব্ধ রয়েছে যেখান থেকে আপনারা ভিডিও দেখে বা টিউটোরিয়াল পড়ে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে পারবেন

 

ডিজিটাল মার্কেটিং বিজনেস কিভাবে শুরু করবেন?

আপনারা ডিজিটাল মার্কেটিং বিভিন্ন ভাবে শুরু করতে পারেন কিছু পদ্ধতি সম্পর্কে আমি আপনাদের আগেই বলেছি কিন্তু আজকাল সব থেকে বেশি একটি পদ্ধতি খুবই জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে

নিজেদের ওয়েবসাইট বানিয়ে সেখানে সার্ভিস প্রোভাইড করা কারণ এটি খুবই সহজ আর আর এখানে কোন অসুবিধা সেরকম হয় না আপনাদেরকে শুধুমাত্র ওয়েবসাইট বানাতে হবে আর কাজ করতে হবে

কিন্তু যদি আপনারা এটির বিজনেস করতে চান যেখানে কাস্টমারদের সার্ভিস ফেল করতে পারবেন তাহলে এর জন্য প্রথমে আপনাদের 4-5 বছরের এক্সপেরিয়েন্স থাকা দরকার কারণ যে কোন কোম্পানি শুরু করার জন্য প্রজেক্ট ম্যানেজমেন্ট, ক্লায়েন্ট ম্যানেজমেন্ট, বিজনেস মডেল ইত্যাদি এর সম্বন্ধে তথ্য জেনে রাখা খুবই জরুরি

অনেক মানুষ আছেন যারা ডিজিটাল মার্কেটিং এর অনলাইন বা অফলাইনে কোর্স করে নেন আর তাদের কোম্পানির শুরু করে দেন কিন্তু তাদের কোন কিছু এক্সপেরিয়েন্স থাকে না তাই তারা কোন প্রজেক্ট পাই না এর ফলে ধীরে ধীরে কোম্পানি বন্ধ হয়ে যায় এই জন্য আপনারা তাড়াহুড়ো না করে প্রথমে 4-5 বছর শেখার উপর মনোনিবেশ করুন তারপর যদি আপনারা কোন কিছু শুরু করেন তাহলে আপনাদের সফলতা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেকাংশে বেড়ে যায়

  1. প্রতিদিন জিনিসকে মনোযোগ সহকারে বুঝুন কারণ আপনার পিছনে এমন অনেক মানুষ আছে যারা আপনাকে পিছনে ফেলার জন্য অনেক বেশি পরিশ্রম করছে
  2. ক্লায়েন্ট কিভাবে ম্যানেজ করবেন সেই বিষয়ে বুঝুন
  3. কোম্পানি কিভাবে রেজিস্ট্রেশন করবেন সেই বিষয়ে তথ্য সংগ্রহ করুন
  4. Upwork এর মত ওয়েবসাইটে আপনার পোর্টফোলিও বানান এটি আপনার ক্যারিয়ারের অনেক বেশী সাহায্য করবে
  5. টিন কিভাবে বানাবেন এটি যে কোন কোম্পানির জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কারণ তিনি যদি ভাল হয় তাহলে কোম্পানির growth নিজের থেকেই বেড়ে যায়

 

আমার শেষ কথা

তো বন্ধুরা আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনারা বুঝে গিয়েছেন ডিজিটাল মার্কেটিং কি, ডিজিটাল মার্কেটিং এর নাম এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এর প্রকারভেদ সম্পর্কে বন্ধুরা যদি আপনাদের এই পোষ্টের সম্বন্ধে কোন ধরনের মন্তব্য থেকে থাকে বা যদি আপনাদের মনের মধ্যে কোনো প্রশ্ন বা সমস্যা থেকে থাকে তাহলে আপনারা অবশ্যই কমেন্ট করে জানাবেন আমি আপনাদের উত্তর দেওয়ার যথাযথ চেষ্টা করব

বন্ধুরা আশা করছি আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার পর আপনাদের খুবই ভালো লেগে থাকবে যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে এই আর্টিকেলটি কে আপনাদের সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে ভুলবেন না আর যদি আপনারা আমার এই ব্লগে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আমাদের এই ব্লগ টি সাবস্ক্রাইব করে রাখুন যাতে এই ধরনের নতুন নতুন তথ্য সম্পর্কে আপনারা অবগত হতে পারেন আজকের এই আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাদের অসংখ্য ধন্যবাদ

এই পোস্টটি কতটা কার্যকর ছিল?

Average rating 5 / 5. Vote count: 1

এখনো পর্যন্ত কোন রেটিং নেই! তাড়াতাড়ি রেটিং দিন

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

Scroll to Top